আজ আপনি আপনাদের মাঝে একটি android app নিয়ে আলোচনা করবো যার গ্রাহক বিশ্ব জুড়ে। গ্রাফিং ক্যালকুলেটর একটি অসাধারন সফটওয়ার যার মাধ্যমে আপনি বিজগানিতিক অনেক সমস্যার সমাধান করতে পারবেন যেটা আপনার স্কুল, কলেজ বা আপনার যে কোন কঠির সমস্যাকে সহজে সমাধান করে দেবে। এই সফটওয়ারটি আপনি আপনার হাতে থাকা এনড্রোএইড বা এনড্রোএড সাপর্ট করে এমন ডিভাইসে ব্যাবহার করতে পারেন এবং পেতে পারেন গানিতিক সমস্যা এবং তার চিত্র ভিত্তিক ফলাফল।

এটা কিভাবে কাজ করে?

এই এপলিকেশনটি অনেক ভাবে আপনার গানিতিক সমস্যাকে সমাধান করবে। এখানে বিভিন্ন ধরনের ফাংশন দ্বারা আপনি নিমিশেই অনেক জটিল সমস্যার সমাধান করে ফেলতে পারেন যেমন; চিত্রের সাহায্যে যে কোন ভ্যালু আপনি এড করতে পারেন, রুটের সমস্যা সমাধান করতে পারেন, ম্যাট্রিক্স নিমিশেই সমাধান করেত পারেন, আরো অনেক কিছুই করা যায় এই এপলিকেশন দিয়ে। যদি আপনি জ্যামিতিক সমস্যার সমাধান করতে চান তাও সম্ভব। এর মধ্যে এতো ফাংশন আছে যা আপনি আগে কোন গ্রাফিক ক্যলকুলেটরে পাননি; এটা হলফ করে বলতে পরি।

কিভাবে পেতে পারেন?

আপনি গুগোল স্টোর থেকে এটা সংগ্রহ করতে পারেন যেটা ফ্রি ভার্সন কিন্তু আপগ্রেট করতে হলে আপনার পকেট থেকে $5.99  গুনতে হবে, এখানে আমার কিছুই করার নেই, শুধু ব্যাবহার করে দেখতে পারের যে এটা কতটা কার্যকর। আপনি যদি টিচার হন বা ম্যাথের স্টুডেন তবে আপনি বুঝতে পারবেন যে কত জরুরী তবে আপনি চাইলে একই নাম দিয়ে অনেককে এই সফ্টওয়ারটি ব্যাবহার আপগ্রেড করিয়ে দিতে পারেন। কিন্তু এর জন্য আপনার নেট কানেকশন থাকে হবে।

বিভিন্ন ফাংশন গুলো কি ভাবে কাজ করে?

আপনি যেকোন সাইন্টিফিক সমস্যার সমাধান করতে পারেন খুবই সহজে। এর মধ্যে সব ফাংশন আছে যা একটি সাইন্টিফিক ক্যালটুলেটরে থাকে যেমন: ফাংশন কি বা বিভিন্ন মান। আপনি নিমিশের মধ্যেই পার্সেন্টজ করতে পারেন এমনকি আপনি যদি সামান্য সময়ের জন্য কাজ থেকে অবসার নেয়ার প্রয়োজন মনে করেন তবে এটা অটোম্যটিক্যালি আপনার কাজকে সেভ করে আর আপনি যখন কাজে ফিরে আসবেন তখন ছোয়া মাত্রই চালু হয়ে যাবে।

এই গ্রাফিং ক্যালকুলেটরটি অনেক গুরুত্বপূর্ণ ফাংশন যুক্ত করছে যার মধ্যে একটি হলো ডাটা এবং গ্রাফিক একই সাথে প্রদর্শন করবে। আপনি বুঝতে পারবেন ফলাফল দেখে যে অংক ঠিক আছে কি না। আপনি চাইলে জুম করেও দেখতে পরেন।আপনি চাইলে ফাংশন টেবিল, গ্রাফ এড করতে পারেন, আবার তাৎক্ষনিক বা পরে মুছেও ফেলতে পারেন সুবিধা মত খুবই সহজে।

আপনি এর মাধ্যমে ফ্রাকশন করতে পারেন, ছোট-খাটো ক্যালকুলেট করতে পারেন যেটা সাধারণ আমাদের মোবাইলে বিল্টইন ক্যালকুলেটরের চেয়ে সহজতম পদ্ধতিকে এবং অনেকে দ্রুত। আপনি জ্যামিতিক সমস্যাগুলো বিভিন্ন লাইনে করে দেখতে পারনে বা বীজ গনিতিক সমস্যা গুলোর একই পেজে এড করতে পারেন এবং দেখতে পারেন পুরো সংখ্যার ফলাফল যেটা সাধারন ক্যালকুলেটর করতে পারে না। Long division, quadratic এবং  linear equations গুলো খুব সহজেই করতে পারেন আপনি যখন চান তখনই।

আপনি এই এ্যপটিকে পার্সোনালাইজ করতে পারেন

আপনি একটি সমস্যার সমাধান করে সেটাকে নিজস্ব পদ্ধতিকে সেভ বা অন্য কোন ফাংশনের সাথে চালু করতে পারেন এমন কি অনেকগুলো সমস্যার সমাধানও একই সাথে সেভ করতে পারেন।

 কিভাবে ব্যাবাহার করবেন?

আপনি যে ধরনের সমস্যার সমাধান করতে চান সেটি চালু করে সাধারন ভাবেই সমাধারন করার চেস্ট করুন। যদি আপনার কার্সার সরাতে হয় তবে আপনি আপনার আঙ্গুলের সাহায্যে যেখানে নিতে হবে সেখানে নিয়ে যেতে পারেন। এটা খুবাই সহজেই আপনি করতে পারবেন এর জন্য আপনাকে বিশেষজ্ঞ হতে হবে না, সাধারণ ব্যাবাহারকারী হলেও সম্ভব।

ইন্টার বাটনের দ্বারা আপনি বিভিন্ন ধরনের এক্সপ্রেশন দেখতে পারবেন একই পেজে; আর এই ক্যালকুলেটর আপনাকে খু্ব সহজেই সেটা করতে দেবে এবং তা আপনি স্কৃনে দেখতে পারবেন বিভিন্ন লাইনে। যদি আপনি ক্লিয়ার বাটন চাপেন তাহলে আপনি ব্লক করে পুরো পেজটিকে ক্লিয়ার করতে পারেন এমন কি যদি আপনি চান শুধু লাইন ক্লিয়ার করতে সেটাও সম্ভব। শধু আপনাকে ১ বা ২ সেকেন্ড অপেক্ষা করতে হবে কাজ সম্পন্ন করার জন্য।

আপনি যদি মেনু ফাংশন ব্যাবহার করেত চান তবে উপেরর বারে ক্লিক করে আপনি সেটা করতে পারেন। আপনি ইচ্ছা করলে একটি মুড থেকে অন্য মুডে যেতে পারেন এবং চাইলে যেকোন মুডো সমাধান সেভ করতে পারেন।

আরো বিস্তারিত জানতে এই লিংকে ক্লিক করুন আর দেখুন ডেভলপারের আপলোড করা ভিডিও এবং অনেক সাধারন সমস্যার সমাধানও করতে পারেন। তাহলে আর দেরি কেন? এক্ষুনি ডাউনলোড করে নিন গুগল প্লে খেকে যদি আপগ্রেট করার প্রয়েজন হয় তবে সেটাও করুন, কেননা মূল্যবান জিনিষের পূর্ণ স্বাধ নিতে হলে মূল্য দিতে হয়।

 

Avatar

পোষ্টটি লিখেছেন: Md. Muzahidul Islam

এই ব্লগে এটাই এর প্রথম পোষ্ট.

Leave a comment